মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ জুলাই ২০১৫

ইলিশের বংশগত গঠন অনুসন্ধানের জন্য মাইক্রোস্যাটেলাইট মার্কার উদ্ভাবন

সময়: জুলাই ২০১৩-জুন ২০১৬

অর্থায়নঃ ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব বায়োটেকনোলজি

ইলিশ বাংলাদেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় এবং জাতীয় মাছ। প্রতি বছর দেশের মোট মৎস্য আহরনে ইলিশের পরিমান এককভাবে ১২% এবং  জিডিপিতে অবদান প্রায় ১%। বাংলাদেশ ছাড়া ভারত, মায়ানমার জাভা দ্বীপ উপকূল এবং শ্রীলঙ্কায়  পাওয়া গেলেও স্বাদের দিক থেকে বাংলাদেশের ইলিশ সেরা। খাদ্যচাহিদা বৃদ্ধি, জলবায়ু পরিবর্তন ও পানির প্রাকৃতিক উৎস হ্রাস প্রভৃতি কারণে প্রজনন ক্ষেত্র হিসেবে আমাদের নদীগুলো দিন দিন উপযোগিতা হারাচ্ছে। ফলে পরিবর্তিত প্রাকৃতিক পরিবেশে ইলিশের অভিযোজন এবং প্রজাতি সংরক্ষণে উচ্চতর জিনতাত্ত্বিক গবেষণার কোন বিকল্প নেই। উন্নত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মাইক্রোস্যাটেলাইট ডিএনএ মার্কার ব্যবহার করে বেশ কিছু মাছের বংশগত গঠন নির্ণয়ে করা হয়েছে। এই পদ্ধতি ব্যবহার করে বাংলাদেশে প্রাপ্ত ইলিশের বিভিন্ন স্টকের বংশগত গঠন, প্রকৃতি ও  বৈশিষ্ট্য  নিরুপন করে উচ্চতর বৈশিষ্ট্যের ইলিশ মাছের স্টক সনাক্ত করণে সবচেয়ে কার্যকর ও গ্রহনযোগ্য ফলাফল পাওয়া যাবে এবং উন্নত জাতের ইলিশ সংরক্ষণ করা সম্ভব হবে। 

 

চলমান কার্যক্রম

নমুনা সংগ্রহ,জেনোমিক ডিএনএ পৃথকীকরন, প্রাইমার ডিজাইন, পিসিআর, আগারোজ/পলিআক্রিলআয়মাইড জেল ইলেক্ট্রোফরেসিস

 

 


ফিরে যানঃ ফিশারিজ বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রকল্প                                                                                  ফিরে যানঃ এনআইবি'র গবেষণা প্রকল্প তালিকা


Share with :