মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd এপ্রিল ২০১৬

টিস্যু কালচার পদ্ধতিতে এলোভেরার চারা উৎপাদন ও জীবপ্রযুক্তি প্রয়োগে জাত ও চাষ পদ্ধতির উন্নয়ন

ঘৃতকুমারী বা এলোভেরা সর্বজনবিদিত এবং বহুল ব্যবহৃত ঔষধী উদ্ভিদ যা প্রসাধনী এবং সম্পুরক খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ইন্টারন্যাশনাল এলো সাইন্স কাউন্সিল (IASC 2004) এর হিসাব অনুযায়ী শিল্পক্ষেত্রে এলোভেরার কাঁচমালের বাজার প্রায় সাত থেকে আট কোটি ডলার এবং এ থেকে উৎপাদিত পন্যের বাজার প্রায় এগারো হাজার কোটি ডলার। এই বিপুল চাহিদার কারণে সারা বিশ্বে বাণিজ্যিকভাবে এলোভেরার চাষ ক্রমশ সম্প্রসারিত হচ্ছে। তবে প্রাকৃতিকভাবে এলোভেরার চারা উৎপাদন ক্ষমতা অপ্রতুল। এর বীজ হয়না তাই এটি অঙ্গজ প্রজননের মাধ্যমে বংশবিস্তার করে। একটি উদ্ভিদ থেকে বছরে গড়ে ১০-১২ টি চারা পাওয়া যায়। এই ধীর প্রক্রিয়া এলোভেরা চাষের ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক ভাবে লাভজনক নয়। কাজেই টিস্যু কালচারের মাধ্যমে স্বল্প সময়ে বিপুল সংখ্যক চারা উৎপাদন করা হলে তা এলোভেরার চাষ সম্প্রসারণ ও কৃষকের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ভুমিকা রাখতে পারে।

ছবিঃ এলোভেরার উন্নয়নে নাটোরে কৃষকদের ক্ষেত পরিদর্শন ও তাঁদের সাথে মত বিনিময়

 

চলমান কার্যক্রম

  • টিস্যু কালচারের মাধ্যমে স্বল্প সময়ে বিপুল পরিমান চারা তৈরির পদ্ধতি প্রতিষ্ঠা করা
  • উৎপাদিত চারার হার্ডেনিং ও সীমিত পরিসরে মাঠ পর্যায়ে চাষ ও উপযোগিতা মূল্যায়ন

ছবিঃ গবেষণাগারে টিস্যু কালচারের মাধ্যমে এলোভেরার চারা উৎপাদন

ছবিঃ উৎপাদিত চারার হার্ডেনিং ও সীমিত পরিসরে মাঠ পর্যায়ে চাষ ও উপযোগিতা মূল্যায়ন

 

 

 


ফিরে যানঃ প্ল্যান্ট বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রকল্প                                                                                  ফিরে যানঃ এনআইবি'র গবেষণা প্রকল্প তালিকা



Share with :